ভাঙ্গুড়ায় পাতানো চাচার দোকানে গিয়ে কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু!

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০২১

পিপ : পাবনার ভাঙ্গুড়ায় পাতানো চাচার দোকানে গিয়ে গ্যাস ট্যাবলেট করে সুমিয়ারা আক্তার সুমি (২০) এক কলেজ ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খাঁনমরিচ ইউনিয়নের ময়দানদীঘি বাজারে। ঘটনার পর থেকে পাতানো চাচা ফজলুর রহমান ওরফে ফজেল পলাতক রয়েছেন। নিহত সুমি ওই গ্রামের আব্দুল কাশেমের মেয়ে ও ভাঙ্গুড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেজ ম্যানেজমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।
স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ বিষবছর পূর্বে আব্দুল কাশেমের সাথে পার্শ্ববর্তী পূর্বরামনগর গ্রামের বাসিন্দা ফজেল উদ্দিনের মধ্যে ভাই-ভাই সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর ফজেল তার পাতানো ভাই আব্দুল কাশেমের ছোট মেয়ে সুমির পড়াশোনাসহ সকল খবচ বহন করত ফজেল। সুমি মাঝে মধ্যে তার ফজেল চাচার বাড়িতে বেড়াতে যেত। গতকাল শুক্রবার(২১মে)সকালে সুমি তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে খাবার খেয়ে ময়দানদিঘী বাজারে তার পাতানো চাচা ফজেলের দোকানে গিয়ে চাচার সামনেই গ্যাস ট্যাবলেট করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সুমি। এ সময় ফজেল সুমিকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পাবনা সদর হাসপাতালে রিফাট করলে পথে সুমি মারা যায়। পরে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সুমির মরদেহ উদ্ধার করে। শনিবার সকালে মৃতদেহটি পোস্টমর্টেমের জন্য পাবনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপালাতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।