চাটমোহরে লকডাউনের মধ্যেও ঈদের বাজারে কেনাকাটা জমজমাট ॥ স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২৮ অপরাহ্ণ, মে ২, ২০২১

চাটমোহর প্রতিনিধি
করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে কঠোর লকডাউন চলছে দেশব্যাপী। এই লকডাউনের মধ্যেও পাবনার চাটমোহরে ঈদের বাজার জমে উঠেছে। কিন্তু কোথাও স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই। অধিকাংশ ক্রেতার মুখে মাস্ক নেই। ছোট শহর চাটমোহরের মার্কেট ও বিপনী বিতানগুলোতে ক্রেতারা কেনাকাটায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। মধ্যবিত্ত,নি¤œবিত্ত থেকে শুরু করে খেটে খাওয়া দিনমজুর নিজেদের সামর্থ অনুযায়ী কেনাকাট করছেন। এছাড়া হকার্স মার্কেটেও বেশ ভিড় দেখা গেছে। সকাল তেহীন চলছে বেচাকেনা। শাড়ি,থ্রি-পিসসহ শিশুদের পোশাক আর জুতার দোকানেই ভিড় বেশী। গৃহবধূ মিলি পারভীন এসেছেন ঈদের কেনাকাটা করতে। মা আছিয়া মার্কেটে তিনি জানান,লকডাউনের কারণে বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। আর এ সুযোগে এবার জিনিসপত্রের দাম একটু বেশীই নিচ্ছেন দোকানীরা। শহরের রফিক মার্কেটের খান বস্ত্রালয়ের স্বত্বাধিকারী সাইফুল ইসলাম খান বললেন,লকডাউনের প্রথম সপ্তাহে বেচাকেনা ছিলনা বললেই চলে। কিন্তু পরের লকডাউনে অনেকেই মার্কেটে আসছেন। বেড়েছে বেচাকেনা। তিনি বললেন,আমরা ক্রেতাদের মাস্ক ব্যবহারের জন্য অনুরোধ করাসহ স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য বলছি। পুরাতন বাজারের চলন্তিকা সু ম্টোরের স্বত্বাধিকারী অসিত কুন্ডু জানালেন,মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলাও মুশকিল। মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলাও আমার দোকান থেকে ক্রেতা চলে গেছে। তারপরও মাস্ক না পরলে বিক্রি করছিনা।
রবিবার বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখা গেল পোশাক ও জুতার দোকান ছাড়াও কসমেটিকসের দোকানেও বেজায় ভিড়। তবে কোন দোকান বা বিপনী বিতানেই সামাজিক দুরত্বের বালাই নেই। মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি। অনেকেই মাস্ক ব্যবহার করছেন না। স্থানীয় প্রশাসন নিয়মিত তদারকির পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহার না করায় জরিমানাও করছে।
বিভিন্ন মার্কেটের দোকানীরা জানান,বেচাকেনা ভালো হচ্ছে। লকডাউনের কারণে কিছুটা অসুবিধা হলেও ক্রেতার ভিড় বাড়ছে।