চাটমোহরে সরকারি জমি জবরদখল করে ঘর নির্মাণ

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৪৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৯, ২০২১

চাটমোহর (পাবনা) সংবাদদাতা
পাবনার চাটমোহর উপজেলার ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের দাঁথিয়া কয়রাপাড়া এলাকায় (মথুরাপুর ইউনিয়নের আনকুনিয়া বাজারের অদূরে) সরকারি জমি জবরদখল করার অভিযোগ উঠেছে। শুধু জবরদখলই নয় দখলকৃত জমিতে অবৈধভাবে ঘরও তোলা হয়েছে। এলাকার সাবেক মেম্বর বলে পরিচিত হজরত আলী মেম্বার এই জমি জবরদখল করে ভোগ করছেন মর্মে এলাকাবাসী জানিয়েছে। এলাকাবাসী জানান,জমিটি দীর্ঘদিন আগে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশান ছিল। হঠাৎ করেই হজরত মেম্বার সেই জমি নিজের দাবি করে দখল করে নেয়। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বা উপজেলা প্রশাসন এ ব্যাপারে কোন প্রকার পদক্ষেপ নেয়নি।
এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা যায়,হজরত আলী মেম্বার সরকারি ১৮ শতাংশ জমি ভোগদখলে থাকাবস্থায় কয়েকদিন আগে সেই জমিতে তার মেয়ে জামাই খলিলকে ঘর তুলে দিয়েছেন।
সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকার লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেল ভূয়া এক টুকরা কাগজ দেখিয়ে হজরত মেম্বার সরকারি জমি কব্জা করে নিয়েছে। ঘরে তুলে দিয়েছে মেয়ের জামাইকে। এলাকাবাসী দ্রুত ঘর উচ্ছেদসহ সরকারি জমি দখলমুক্ত করার দাবি জানান।
সাংবাদিকদের যাবার কথা শোনার পর হজরত আলী বিভিন্নভাবে সাংবাদিকদের ম্যানেজ করার অপচেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে সাংবাদিকদের বলেন,আমার কাগজ আছে। কাগজ দেখতে চাইলে একটি স্ট্যাম্প দেখান। কোন প্রকার রেকর্ড,খাজনা-খারিজ দেখাতে পারেননি। হজরত আলী এক পর্যায়ে বলেন,সরকারি জমি গরীব মানুষকে ঘর তুলে দিয়েছি,তাতে কী হয়েছে।
এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সৈকত ইসলাম বলেন,সরকারি জমি দখলমুক্ত করা হবে। এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেবো।