চাটমোহর হাটে মানুষের ঢল,দোকানপাটে প্রচন্ড ভিড়


চাটমোহর প্রতিনিধি
মহামারি করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে সমগ্র দেশে চলছে ২য় দফায় সাত দিনের ‘কঠোর’ লকডাউন। নানা ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করে প্রশাসন প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে সভা সমাবেশ, মিটিং, সামাজিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধসহ প্রশাসনিক বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে। এরই মধ্যে রবিবার থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে দোকান,শপিংমল। চাটমোহরের সর্ববৃহৎ অমৃতকুন্ডা হাটে রবিবার (২৫ এপ্রিল) সকাল থেকেই বিপুল লোকসমাগম দেখা গেছে। প্রশাসনের তেমন কোনো নজরদারি না থাকায় মানুষ বেপরোয়াভাবে হাটে ঘোরাফেরা ও বেচাকেনা করেছে। অধিকাংশ হাটুরেদের মুখে মাস্ক ছিলনা। হাটের এমন চিত্র দেখে মনে হবে ‘এখানে কোনো করোনা নেই।
একই অবস্থা বিরাজ করেছে দোকানপাটে। চাটমোহর পৌর শহর,রেলবাজার,হান্ডিয়াল,ছাইকোলাসহ বিভিন্ন বাজার ও মার্কেটের দোকানগুলোতে প্রচন্ড ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। ছিলনা কোন সামাজিক দুরত্ব বা স্বাস্থ্যবিধি মানার বলাই। দোকানীর কোন প্রকার সুরক্ষা সামগ্রী রাখেনি। ইচ্ছেমতো চলাচল ও বেচাকেনা চলেছে সন্ধ্যা অবধি।
বড় ধরনের লোকসমাগমের স্থানগুলোতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও চাটমোহর উপজেলার হাট-বাজারে লোকসমাগম নিয়ন্ত্রণে তেমন কোনো পদক্ষেপ ছিলনা। প্রশাসনের নজরদারি না থাকায় হাট-বাজার ও দোকানপাট ও মার্কেটে আগত জনসাধারণ কোনো নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা করছে না। অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক ছিলনা। রাস্তায় ব্যাপকহারে যানবাহন চলাচল করেছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সৈকত ইসলাম জানান, রেলবাজার হাটে সকালে মাইকিং করা হয়েছে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মানুষ না মেনে চলাচল করলে জনসচেতনতা না থাকলে এটা দুঃখজনক ব্যাপার। নজরদারি বৃদ্ধিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *