র‌্যাব কর্তৃক জাকারিয়া পিন্টুর নামে অপবাদের অভিযোগ বিএনপি’র

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৪০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২২

শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলি করা মামলায় মৃত্যুদন্ডাদেশ প্রাপ্ত জাকারিয়া পিন্টুকে গ্রেফতারের পর র‌্যাবের মিডিয়া উইং এর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ঈশ্বরদীর বিএনপি। শনিবার (২ জুলাই) দুপুরে ব্রাদার্স ইউনিয়নের ক্লাবে ঈশ্বরদী উপজেলা এবং পৌর বিএনপি, অংগ ও সহযোগী সংগঠন এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপি’র একাংশের আহব্বায়ক আহসান হাবিব।

লিখিত বক্তব্যে পৌর বিএনপি’র যুগ্ম আহব্বায়ক এস এম ফজলুর রহমান অভিযোগ করেন, জাকারিয়া পিন্টুকে গ্রেফতারের পর র‌্যাবের মিডিয়া উইং আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তাকে সন্ত্রাসী বাহিনীর পৌষ্যকারী, চরমপন্থি, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, খুনি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। র‌্যাবের ভিত্তিহীন ও মিথ্যা বক্তব্যে আমরা হতবাক, বাকরুদ্ধ ও হতভম্ব হয়েছি। র‌্যাবের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও প্রত্যাখান করে তিনি বলেন, জাকারিয়া পিন্টু বিএনপি’র সম্মানিত জনপ্রিয় জননেতা।

এসময় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবি এসোসিয়েশনের বিএনপি নেতা এ্যাড: জামিল আক্তার এলাহী, পৌর বিএনপি’র যুগ্ম আহব্বায়ক আতাউর রহমান পাতা, আমিনুর রহমান স্বপন, সদস্য সচিব বিষ্ট সরকার, সদস্য সুমার খান, যুবদল নেতা জুয়েল জাকিরসহ বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত: ১৯৯৪ সালে ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে গুলি ও বোমা হামলা মামলায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক বিএনপি নেতা জাকারিয়া পিন্টুকে গত ২৫ জুন কক্সবাজারের টেকনাফ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরদিন ২৬ জুন রবিবার ঢাকায় র‌্যাবের মিডিয়া উইং সংবাদ সম্মেলন করে। সোমবার (২৭ জুন) আদালতের মাধ্যমে জেলে প্রেরণ করা হয়। ২০১৯ সালে এ মামলার রায়ে পিন্টুসহ ৯ জনকে মৃত্যুদন্ড, ২৫ জনকে যাবজ্জীবন ও ১৩ জনকে দশ বছরের কারাদন্ডের দেন আদালত। রায়ের পর জাকারিয়া পিন্টু পলাতক ছিলেন।