রূপপুর পারমাণবিকের প্রথম ইউনিটের রিয়্যাক্টর সহায়ক ভবনের নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ের আগেই সম্পন্ন

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৪৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৯, ২০২২

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রথম ইউনিটের সহায়ক রিয়্যাক্টর ভবনের কংক্রীট ঢালাইয়ের কাজ সম্প্রতি নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হয়েছে। এবিষয়ে শনিবার (৯ এপ্রিল) রাতে প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর ইত্তেফাককে বলেন, ভবনটি ‘নিউক্লিয়ার আইল্যান্ড’ বা পরমাণু দ্বীপের অংশ এবং এখানে স্থাপিত হবে নিয়ন্ত্রন ডিভাইসসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি।

তিনি জানান, লজিস্টিক্সের সর্বোত্তম ব্যবহার এবং সময়ানুযায়ী প্রয়োজনীয় নির্মান সামগ্রী ও যন্ত্রপাতির সরবরাহ নিশ্চিত হবার ফলে নির্ধারিত সময়ের ২৪১ দিন আগেই ভবনটির নির্মান কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।

জানা গেছে, রুশ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিকিমিত-এতমস্ত্রয় এর কর্মীরা প্রতিমাসে ১,৬০০ ঘনমিটার কংক্রীট ঢালাই করেন, যদিও শিডিউলে এর পরিমান ধরা হয়েছিল ১,০০০ ঘনমিটার।

প্রকল্পের জেনারেল কন্ট্রাকটর এএসই’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট এবং একই সঙ্গে রূপপুর এনপিপি নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক আলেক্সী দেইরী বলেন, “সকল কঠোর চাহিদা পূরণ করে নিকিমিত-এতমস্ত্রয় এর কর্মীরা যে গতিতে কাজ সম্পন্ন করেছেন তাতে রূপপুর প্রকল্পের নির্মান কর্মীদের সর্বোচ্চ দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের পরিচয় পাওয়া যায়। আমাদের কর্মীদের এজাতীয় পেশাদারিত্বের ওপর ভরসা করে আমরা বলতেই পারি যে, কোভিড-১৯ অতিমারী এবং জটিল আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি এবং অন্যান্য চ্যালেঞ্জ সত্বেও, রূপপুর এনপিপির কাজ নির্ধারিত সময়েই শেষ হবে”।

নির্মাণ কাজে সময় হ্রাস পাওয়ায় ওভারহেড খরচসহ সার্বিক খরচ হ্রাস পেয়েছে এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দক্ষ কর্মীদের নির্ধারিত সময়ের আগেই কাজ শেষ করায় এসকল কর্মীরা ইতোমধ্যে অন্যান্য কাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত: রূপপুর প্রকল্পে স্থাপিত হচ্ছে দু’টি ৩+ প্রজন্মের রুশ ভিভিইআর-১২০০ রিয়্যাক্টর যার মোট উৎপাদন ক্ষমতা হবে ২,৪০০ মেগা-ওয়াট। রুশ এই রিয়্যাক্টর মডেলটি সকল আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা চাহিদা পূরণে সক্ষম। প্রকল্পের জেনারেল কন্ট্রাকটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে রুশ রাষ্ট্রীয় পরমাণু শক্তি কর্পোরেশন রসাটমের প্রকৌশল বিভাগ।