দুর্ঘটনা এড়াতে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের গেট কিপার দেয়া হলো ওয়ারলেস মোবাইল

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:৩৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০২২

দুর্ঘটনা এড়াতে পশ্চিমাঞ্চল রেলের পাকশী বিভাগে গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনের গেটম্যানদের দেওয়া হয়েছে ওয়ারলেস মোবাইল ফোন। লেবেল ক্রসিং রেলগেটে দুর্ঘটনা এড়াতে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের আওতায় ২২৪ টি লেবেল ক্রসিং গেটের গেটকিপাররা এখন থেকে ব্যবহার করবেন এই ওয়ারলেস ফোন।

সোমবার (৭ মার্চ) বিকেলে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনোয়ার হোসেনের দফতরে ১৪ জন রেলওয়ের ট্রাফিক গেটকিপারদের কাছে ফোনগুলো তুলে দেন ।

কোন ট্রেন, কখন কোন স্টেশন অতিক্রম করছে, তা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মাধ্যমে বার্তা পৌঁছে দেওয়া হবে। এতে করে রেলওয়ে লেবেল ক্রসিং গেটে দুর্ঘটনার সংখ্যা কমে আসবে। এছাড়াও পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের প্রকৌশল বিভাগের সব সেকশনের রেলওয়ের গেটে ফোনগুলো পৌঁছে দেওয়া হবে।

সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা (এটিও) সাজেদুল ইসলাম বাবু জানান, পাবনার ঢালারচর-রাজশাহী রেলওয়ে রুটের কাশিনাথপুর, তাঁতীবন্দ, দুবলিয়া, পাবনা, টেবুনিয়া, দাশুড়িয়া, মাঝগ্রাম, এবং দাশুড়িয়া গোপালগঞ্জ বোড়াশী, চন্দ্রদিঘলিয়ার রেলওয়ে গেটকিপারদের হাতে ফোন তুলে দেওয়া হয়।
তিনি আরও জানান, পাকশী রেলওয়ের পরিবহন দফতরে, তাদেরকে ওয়ারলেস মোবাইল ফোন, কখন? কিভাবে? কি কারণে ব্যবহার করার দরকার, এ বিষয়ে সতর্কতামূলক পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনোয়ার হোসেন জানান, আগে রেলওয়ে লেবেল ক্রসিং গেটগুলোতে ফোন ছিল না। ফলে কোন সমস্যায় স্টেশন বা রেলওয়ের কন্ট্রোলের সাথে যোগাযোগ করতে পারতো না গেটকিপাররা। যোগাযোগ করতো তাদের ব্যাক্তিগত ফোন দিয়ে। এরা স্বল্প আয়ের মানুষ। আগে ডিউটিতে যে ব্যাক্তিগত অর্থ ব্যায় হতো, এখন আর হবে না।

আনোয়ার হোসেন আরো জানান, এখন থেকে তারা পাশ্ববর্তী গেটকিপার, স্টেশনের কাছের গেটকিপার, পাকশী কন্ট্রোল ও রেলওয়ের ফোন নাম্বারে ফোন করে বলে দিতে পারবে, যে কোন ট্রেন কখন কোন স্টেশন অতিক্রম করছে। এতে গেট টু গেট যোগাযোগ থাকলে রেলওয়ের লেবেল ক্রসিং গেটে দুর্ঘটনা কমে আসবে। এতে ট্রেনগুলো নিরাপদে চলাচল করতে পারবে।