ঈশ্বরদী আলহাজ্ব উচ্চ বিদ্যালয়ে অবজ্ঞাভরে পালিত হলো অমর একুশ

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:৩৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২২

ঈশ্বরদীর গুরুত্বপূর্ণ আলহাজ্ব উচ্চ বিদ্যালয়ে চরম অবজ্ঞাভরে অমর একুশ পালন করা হয়েছে। সেই সাথে জাতীয় ও কালো পতাকারও অবমাননার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

সরেজমিনে সকালে দেখা যায়, একুশে ফেবব্রুয়ারীর আগে শহীদ মিনার পরিস্কার ও রং করার নিয়ম থাকলেও তা করা হয়নি। এমনকি মিনারের পাদদেশ পানি দিয়ে ধোয়া বা পরিস্কার করা হয়নি। মিনারের পাদদেশে ছোট্ট তোড়া ও কয়েকটি ফুল পড়ে থাকতে দেখা যায়। এলাকাবাসীরা জানান, স্কুল থেকে কোন পুষ্পস্তবক দেয়া হয়নি। স্থানীয়রা এই ফুল দিয়ে গেছে। মিনারের সাথে ষ্ট্যান্ডে জাতীয় ও কালো পতাকা দুটিই অর্ধনর্মিত করে রাখা হয়েছে।

এপ্রসংগে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ব্যরিষ্টার সৈয়দ আলী জিরু জানান, জাতীয় পতাকা অর্ধনর্মিত রাখলে কালো পতাকা উত্তোলনের দরকার হয় না। আর কালো পতাকা উত্তোলন করলে জাতীয় পতাকা অর্ধনর্মিত রাখা যায় না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পতাকার এই অবস্থাকে তিনি অবমাননা বলে আখ্যায়িত করে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

এপ্রসংগে সহকারি প্রধান শিক্ষক দেরোয়ার হোসেন বলেন, ফুলের ছোট তোড়া স্কুলের পক্ষ হতে দেওয়া হয়েছে। প্রধান শিক্ষক প্রভাবশালী, আমাদের কারও কোন শোনেন না।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সেলিম আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যথাযোগ্য মর্যাদায় অমর একুশে পালনের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। অবজ্ঞা করা হলে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স্কুল পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি ইদ্রিস আলী মন্ডল বলেন, প্রধান শিক্ষক একজন বেয়াদব লোক। অনেক অপকর্ম করে পার পেয়ে যাচ্ছেন।

বর্তমান সভাপতি সাহাবুদ্দিন সীমা এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিযা ব্যক্ত করেছেন।

প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হকের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি