১০ জানুয়ারীর মধ্যে বেতন-ভাতা প্রদান না করলে পশ্চিম রেলে ট্রেন চালানো বন্ধের হুমকি

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০২২

১০ জানুয়ারীর মধ্যে বেতন-ভাতা সম্পূর্ণ প্রদান না করা হলে বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং ষ্টাফ ও শ্রমিক-কর্মচারী সমিতি ১১ জানুয়ারী হতে ট্রেন চলাচল বন্ধের অবস্থা তৈরী হবে বলে জানিয়েছেন। রবিবার (৯ জানুয়ারী) রাতে সমিতির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এই খবর জানিয়েছেন। রেলের রানিং ষ্টাফদের মধ্যে বিশেষ করে পশ্চিমাঞ্চল রেলের সকল শাখার লোকোমাষ্টার ও সহকারী লোকোমাস্টাররা (ট্রেনচালক) দ্রæত দাবী বাস্তবায়নের জন্য হার্ডলাইনে অবস্থান করে ট্রেন চালনা বন্ধের আলটিমেটাম দিয়েছেন।

জানা যায়, গত ৬ জানুয়ারী ০১/২২ স্মারকে রেলের রানিং ষ্টাফরা ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসের বেতন-ভাতা ১০ জানুয়ারীর মধ্যে প্রদানের জন্য পশ্চিম রেলের পাকশী বিভাগীয় যন্ত্র প্রকৌশলীর (লোকো) এর নিকট লিখিত আবেদন জানান। আবেদনে বলা হয়, লালমনিরহাট বিভাগের কিছু কিছু রানিং ষ্টাফদের নভেম্বরের নিয়মিত বেতন বিলের সাথে বাসা ভাড়া প্রদান করা হয়নি। বাজেটে অপ্রতুলতার অজুহাতে পাকশী বিভাগের রানিং ষ্টাফদের বেতন এখনও অনুমোদন না করায় তারা বিক্ষুব্ধ ও আতংকিত। এই অবস্থায় ১০ জানুয়ারীর মধ্যে সংস্থাপন কোড ও রানিং সেড ম্যানুয়েলের বিধি মোতাবেক অর্জিত মাইলেজ ও প্রাপ্য সকল ভাতাদি ডিসেম্বরের বেতন বিলে পরিশোধ না হলে ট্রেন চালনা হতে বিরত থাকবেন বলে জানানো হয়।

লিখিত বিবৃতিতে রানিং ষ্টাফরা আরও জানান, বেতন ব্যবস্থা আধুনিকায়ন করে ২০২০ এর জুলাই হতে পে অফিসের পরিবর্তে এখন ব্যাংকের মাধ্যমে বেতন প্রদান করা হচ্ছে। উদ্দেশ্য ছিলে যাতে রেল কর্মচারীরা প্রতি মাসের ১ তারিখের মধ্যে যাতে বেতন পায়। কিন্তু এখন নির্ধরিত সময়ে বেতন না পাওয়ায় লোকোমাষ্টাররা বিড়ম্বনার স্বীকার হচ্ছে। ট্রেন চলাচল বন্ধ হলে এর দায়ভার সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে বলে ট্রেনচালক ও সহকারীরা জানিয়েছেন।

এব্যাপারে রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় ম্যানেজারকে রবিবার রাত ৯.৫২ মিনিটে মোবাইলে ২ দফা ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।