জাতীয় শোক দিবসে ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠান

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:৪৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০২১

জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্টিত হয়েছে। রবিবার (১৫) রাতে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নূরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু মানেই স্বাধীনতা। জয় বাংলার শ্লোগান দিয়ে বঙ্গবন্ধু যদি বাংলাদেশ স্বাধীন না করতেন, তাহলে আমরা আজ সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখতে পারতাম না। তাই বঙ্গবন্ধু বিহীন বাংলাদেশ চিন্তা করা যায় না।

তিনি বলেন, বাঙালির হৃদয়ের সর্বশ্রেষ্ঠ অনুভূতির নাম বঙ্গবন্ধু। তিনি বাংলাদেশের একজন স্বপ্নদ্রষ্টা। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন বলেই আমরা একটা আলাদা মানচিত্র, পতাকা পেয়েছি। তিনি নিজের জন্য ভাবেননি, দেশের কথা, দেশের মানুষের কথা ভেবেছেন। নিঃস্বার্থভাবে দেশের জন্য কাজ করে গেছেন। এদেশের তিনি নিজের জীবন দিয়ে প্রমাণ করে গেছেন।

Dailyvision24.com

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বিহীন বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভব না। তাই বঙ্গবন্ধুর এই বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হাতেই নিরাপদ। আর কারও হাতে নিরাপদ না। জ্বালাও পোড়াও আর আগুন সন্ত্রাস করে কখনো রাজনীতি করা যায় না। রাজনীতি করতে হলে দেশ ও দেশের মানুষকে ভালবাসতে হয়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহক আলী মালিথা বলেন, বঙ্গবন্ধুকে দৈহিকভাবে হত্যা করা হলেও তাঁর মৃত্যু নেই। তিনি চিরঞ্জীব। কেননা একটি জাতিরাষ্ট্রের স্বপ্নদ্রষ্টা এবং স্থপতি তিনিই। যতদিন এ রাষ্ট্র থাকবে, ততদিন অমর তিনি। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক অভিন্ন। ৭৫’র খুনিরা আজ পরাজিত। বঙ্গবন্ধুর নির্দেশিত পথে তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ।

সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাব সভাপতি সহকারী অধ্যাপক স্বপন কুমার কুন্ডু। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আব্দুল বাতেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক ফজলুর রহমান ফান্টু, কৃষকলীগের জেলার নেতা ও সাবেক ভিপি মুরাদ মালিথা, জেলা পরিষদের সদস্য শফিউল আলম বিশ্বাস, লক্ষীকুন্ডার সাবেক চেয়ারম্যান আনিস মোল্লা এসময় অন্যান্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক আবুল হাসেম, সিনিয়র সাংবাদিক এম এ কাদের, সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সময়ের ইতিহাস পত্রিকার সম্পাদক শেখ মহসীন, কোষাধ্যক্ষ মিশুক প্রধান. প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক আলমাস আলী, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আহসান হাবিব, সাহিত্য-সাংস্কৃতিক সম্পাদক আতাউর রহমান বাবলু, নির্বাহী সদস্য আক্তারুজ্জামান মিরু, সদস্য মাহফুজুর রহমান শিপন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থার সভাপতি আসাদুজ্জামান আসিফ, সহ-সভাপতি আশরাফুল ইসলাম সবুজ, সহ-সভাপতি দেওয়ান সবুজ সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ খালেদ মাহমুদ সুজন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইয়াসিন আলী শেখ, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শিশির মাহমুদ, রাসেল আলী নির্বাহী সদস্য শরিফুল ইসলাম সুমন, উজ্জ্বল প্রধানসহ অন্যান্য সদস্যরা আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করেন।