সাংবাদিক সংগঠন ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৫৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৮, ২০২১

পিপ : সাংবাদিক সংগঠন ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান-উপসনালয়ে করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ করেছে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটি। আজ দুপুরে ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দীর পরিচালনায় এসময় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক সফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাপা, কার্যনির্বাহী সদস্য সৈয়দ আব্দুল আউয়াল শামীম, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, বিএফইউজের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আব্দুল মজিদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক জিহাদুর রহমান জিহাদ, ক্রাইম রিপোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন আরিফসহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মো. শহীদুল্লাহসহ ধর্মীয় ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবর্গ, উপ-কমিটির সদস্য আখলাকুর রহমান মাইনু, ডা. হেদায়াতুল ইসলাম বাদল, ড. মোয়াজ্জেম হোসেন মাতাব্বুর আমিনুল, ডা. শেখ ফয়েজ আহমেদ, আব্দুল বারেক, মো. মিজানুর রহমান খান, আমিনুল ইসলাম খান আবু, মো. মাহবুবর রশীদ, ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাশেম সীমান্ত, ইদ্রিছ মল্লিক, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল আলিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রীর মধ্যে ছিল কেএন ৯৫ মাস্ক, উন্নতমানের সার্জিক্যাল মাস্ক, উন্নতমানের কাপড়ের মাস্ক, বিশেষ ধরনের কেমিক্যালযুক্ত এন্টিসেপটিক সাবান, ও গুণগতমানসম্পন্ন স্যানিটাইজার। সচেতনতা কাযক্রমের অংশ হিসেবে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের হাতে এ সকল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রী তুলে দেয়া হয়।
সংগঠনসমূহের মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, ক্রাইম রিপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ, হাইকোর্ট মাজার মসজিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, রামকৃষ্ণ মিশন, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ, চট্টগ্রাম মহানগর মেয়র কতৃক পরিচালিত আইসোলেশন সেন্টার।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্বব্যাপী করে অসহায় মানুষের জন্য ইতোমধ্যেই শেখ হাসিনা সরকার প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়ার কাজ শুরু করেছে। কারণ জনগণের জন্যই রাজনীতি করেন শেখ হাসিনা। তাই জনগণের স্বার্থে কখন কী করতে হবে তা বঙ্গবন্ধু কন্যা ভালোই বোঝেন। এজন্যই তিনি দেশের জনগণের আস্থার ঠিকানা ও নির্ভরতার বাতিঘর। অপরদিকে বিএনপি জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে তাদের অসহায়ত্ব নিয়ে রাজনৈতিক বুলি আওড়িয়ে যাচ্ছে। তারা জনগণকে ভয় পায় বলেই জনমানুষের পাশে দাঁড়ানোর সাহস হারিয়েছে।
প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, করোনাভাইরাস সংকট বাংলাদেশেও প্রভাব বিস্তার করেছে। এ প্রেক্ষিতে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনার প্রভাব পুনরায় পড়তে শুরু করেছে। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেধা, দক্ষতা, প্রজ্ঞায় করোনার বর্তমান ঢেউ অত্যন্ত সফলতার সাথে মোকাবেলা করার নানাবিধ পন্থা অবলম্বন করছেন।
ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী বলেন, করোনার শুরু থেকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটির করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ, খাদ্যসামগ্রী প্রদান, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অব্যাহত রেখেছে। আওয়ামী লীগ জনগণের সংগঠন। মানবিক সংগঠন। আমরা মানবিক কাজ নিয়ে জনগণের পাশে আছি।
তিনি বলেন, সাংবাদিকরাও ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন। তাই তাদের পাশে দাঁড়ানোও আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। সেই দায়িত্ব বোধ থেকেই সাংবাদিক সংগঠন এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এবং উপসনালয়ে করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ করছি। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে।