দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিলেন রেজাউল রহিম লাল টিকা গ্রহন ও স্বাস্থ্যবিধি মানার আহবান

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:৫১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১০, ২০২১

রনি ইমরানঃ পাবনায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৩৮ জন আর সপ্তাহ শেষে ৯৯জন কোভিড -১৯শে আক্রান্ত হয়েছে এবং নতুন করে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন,জেলা স্বাস্থ্যবিভাগ। ৩৮ জন নতুন সনাক্তদের মধ্যে পাকশী রুপপুরে ৮ জন,পাবনা সদরে ২৫ জন, সুজানগর সাথিয়া ও ভাঙ্গুড়ায় উপজেলায় মোট ৫ জন আক্রান্ত হয়েছে।
একদিনে ৩৮ জন ও এক সপ্তাহে ৯৯ জন কোভিড ১৯ আক্রান্তের সংখ্যা যা গত কয়েক মাসের পরিসংখ্যানে সর্বোচ্চ। জেলা স্বাস্থ্যবিভাগ মনে করছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গেছে, পাবনাতে।
একদিকে টিকা গ্রহন কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানা ও সবার মাঝে সচেতনতায় এই মহামারী প্রতিরোধ করা সম্ভব বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধক কোভিড১৯ এর দ্বিতীয় মেয়াদে টিকা দান শুরু হয়েছে। দ্বিতীয় মেয়াদে টিকা নিয়ে পর্যায়ক্রমে সকলকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধক
টিকা নিতে আহবান জানিয়েছেন ,বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল। করোনা মহামারী রোধে টিকা গ্রহনে সকলকে উদ্বুদ্ধ করেন তিনি। এদিকে,করোনার সংক্রমণ বাড়ছে পাবনায়। পাবনা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে বলছে,উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার বিষয় হলো পাবনার বেশিরভাগ মানুষ এপর্যন্তও অসচেতন তাদের স্বাস্থ্যবিধিতে চরম উদাসীনতা রয়েই গেছে। মানুষের মাস্ক পড়ার প্রবণতা তেমন বাড়েনি, মুখের মাস্ক থুতনিতে ঝুলিয়ে রাখছে,একসাথে গাদাগাদি হয়ে আড্ডা দিচ্ছে, পাড়ার ছেলেরা মাঠে খেলাধুলা করছে,কিছু খাওয়ার আগে স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী হাত ধোয়ার অভ্যাসের কমতি দেখা যাচ্ছে। এসব স্বাস্থ্যবিধি মানা অতি জরুরী হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা স্বাস্থ্যবিভাগ। করোনা প্রতিরোধে মানুষকে সচেতন করতে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন।সংক্রমন ঠেকাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে।জেলা প্রাশাসন থেকে বার বার করোনা সচেতনতায় সর্তক করা হলেও মানুষের মাঝে অসচেতনতা রয়েই গেছে।
বাংলাদেশে সম্প্রতি করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকার ভ্যারিয়েন্টের বেশি সংক্রমণ হচ্ছে বলে জানিয়েছে(আইসিডিডিআর,বি)। পাবনায় এমন আশংকা ফেলে দেওয়া যায় না।
আফ্রিকার ভ্যারিয়েন্টের বেশি সংক্রামক এবং ঝুঁকি পূর্ণ। দেশে করোনা ভাইরাস বেড়ে যাওয়া পেছনে এই স্ট্রেইন দায়ী মনে করছেন অনেক বিশেষজ্ঞ।
এ বিষয়ে কথা বলেছেন, পাবনা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের সাবেক উপ পরিচালক ডাঃ রাম দুলাল ভৌমিক তিনি মনে করেন ভাইরাসটির যে কোনো ধরনকেই ছোট করে দেখার অবকাশ নেই,আক্রান্ত তো বাড়ছে, সকলেই যদি সকলের ভালোর জন্য কঠোর স্বাস্থ্যবিধি না মানে তো ভয়াবহ অবস্থা হতে পারে। মানুষকে বুঝতে হবে সচেতন হতে হবে।
করোনা নিয়ে এবারে হেলা ফেলা নয় বরং কঠিন সচেতনতা আর স্বাস্থ্যবিধি না মানলে পরিস্থিতি ভয়াবহতা হয়ে উঠতে পারে।
পাবনা জেলা স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে জানা যায় অতিসত্বর তারা সামাজিক ভাবে সচেতনতা বাড়াতে পাড়া মহল্লার মসজিদের ইমামদের নিয়ে সভা করবেন।