হঠাৎ করেই ঈশ্বরদীতে ডায়ারিয়ার প্রকোপ

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩১ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২১

ঈশ্বরদী সংবাদদাতাঃ
হঠাৎ করেই ঈশ^রদীতে ডায়ারিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। ঈশ^রদীর বিভিন্ন এলাকায় শত শত মানুষ ডায়ারিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যা বেশী হলেও অন্যান্যরাও রেহাই পাচ্ছে না। প্রচন্ড গরমের কারণেই ডায়ারিয়ায় আক্রান্ত বেড়ে গেছে বলে চিকিৎসকরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন।
ঈশ^রদী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক ডায়ারিয়া আক্রান্ত রোগী সেবা নিতে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসছে। ঈশ^রদী হাসপাতালেও প্রতিদিনই ভর্তি হচ্ছে গুরুতর ১০-১৫ জন ডায়ারিয়া আক্রান্ত রোগী। এছাড়াও বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকেও ডায়ারিয়ার রোগীর সংখ্যা বেড়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
৫০ শয্যার ঈশ^রদীর হাসপাতালে করোনার জন্য একটি ইউনিট বরাদ্দ করায় ডায়ারিয়া আক্রান্ত রোগীর স্থান সংকুলান হচ্ছে না। হাসপাতালটি ৫০ শয্যায় উন্নিত করা হলেও এখনও পূর্ণাংগতা পায়নি। মূলত ২৯ শয্যা নিয়েই হাসপাতাল দীর্ঘদিন পরিচালিত হচ্ছে।
হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আসমা খান জানান, করোনার জন্য একটি ইউনিট বরাদ্দ করায় অন্যান্য রোগীদের সেবা দিতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। মঙ্গলবার সকালে কয়েকজন ডায়ারিয়া রোগী চলে যাওয়ার পর এখনও ৭-৮ জন ভর্তি আছে বলে জানান তিনি।
হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: শফিকুর ইসলাম শামীম জানান, ঈদের পর ঈশ^রদীতে ডাযারিয়ার প্রকোপ বেড়েছে। রমজানের পর খাবার গ্রহনে হেরফের হওয়া এবং প্রচন্ড গরমের কারণে ডায়ারিয়া আক্রান্ত বাড়ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
পরিবার পরিকল্পনার মা ও শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসক ডা: আব্দুল বাতেন শিশু ও বয়ো:বৃদ্ধদের ডায়ারিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন। প্রতিদিনই হাসপাতালে তাঁর কাছে ডাযারিয়া আক্রান্ত শিশুরা ভীড় জমাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, গত কযেকদিন ধরে ঈশ^রদীর উপর দিয়ে বযে যাওয়া তীব্র দাবদাহের কারণেই ডায়ারিয়ায় বেশী পরিমাণ আক্রান্ত হচ্ছে।
প্রসঙ্গত: গত এক সপ্তাহ ধরে আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে ঈশ^রদীর উপর দিয়ে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। তাপমাত্রা ৩৭-৩৮.৫ ডিগ্রীর পাশাপাশি বাতাসে জলীয় বাস্পের পরিমাণ বেশী থাকায় তীব্র গরমে মানুষ চরম দূর্ভোগের মধ্যে দিন অতিবাহিত করছে। এই পরিস্থিতির কারণে ডায়ারিয়ার প্রকোপ বেড়ে গেছে।