রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ১ নং ইউনিটের রিয়্যাক্টর ভবনের ডোম স্থাপন সম্পন্ন

ডেইলি ভিশন টুয়েন্টিফোর অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০২১

নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের রিয়্যাক্টর ভবনের আভ্যন্তরীণ কন্টেইনমেন্ট ডোমের ধাতব কাঠামো স্থাপন সম্পন্ন হয়েছে। রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মান প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এসএসই জেএসসি রোসাটম রাষ্ট্রীয় কর্পোরেশন প্রকৌশল শাখা এই কাজ সম্পন্ন করেছে। বুধবার (৪ আগষ্ট) সন্ধ্যায় প্রকল্পের রাশিয়ান পার্টের প্রকল্প পরিচালক ও এসএসই জেএসসি এর ভাইস প্রেসিডেন্ট ও এলেক্সি ডেইরী এই তথ্য জানিয়েছেন।

Dailyvision24.com
সাব কন্ট্রাক্টর ট্রেস্টরোসেম এলএলসি এর বিশেষজ্ঞগন আভ্যন্তরীন ডোমের শেষ টায়ার উত্তোলন এবং স্থাপন সম্পন্ন করে। অর্থাৎ ১৩৫০ টন উত্তোলন মতার ভারী ক্রেনের লিভারের সাহায্যে ২৩০ টনের ধাতব কাঠামোকে উত্তোলন করা হয়। ধাতব কাঠামোটিকে রিয়াক্টর ভবনের +৫১.৭০০ থেকে +৬০.৫০০ উচ্চতায় উঠিয়ে নকশা অনুযায়ী স্থাপন করা হয় ।

এলেক্সি ডেইরী জানান “ প্রথম ইউনিটের আভ্যন্তরীন কন্টেইনমেন্টকে +৬০.৫০০ উচ্চতায় উঠিয়ে স্থাপন করা ২০২১ সালের একটি গুরুত্বপুর্ন ঘটনা। এই কাজের মধ্য দিয়ে রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানের আরেকটি মাইলফলক সফলতার সাথে অতিক্রমিত হলো। এই ইউনিটের পরবর্তী ধাপের কাজগুলো হলো রিয়াক্টর ভেসেল, একটি স্টীম জেনারেটর ও একটি প্রধান সার্কুলেশন পাইপলাইন কে সংযোজন করা” ।

তিনি বলেন, আভ্যন্তরীন কন্টেইনমেন্টের স্থাপনার কাজে একে দুটি ধাপে উত্তোলন করা হয়েছে; +৪৪.১০০ মিটার থেকে ৫১.৭০০ মিটার এবং সেখান থেকে +৬০.৫০০ মিটারে উত্তোলন। ডোমের নিচের অংশ ৪৪ মিটার ব্যাস ও ১৮৫ টন ওজন বিশিষ্ট একটি ধাতব কাঠামো যাকে এক সপ্তাহ আগেই নির্ধারিত জায়গায় স্থাপন করা হয়। সামনের দিনগুলোতে বিশেষজ্ঞগন +৪৪.১০০ এর ওপরে আভ্যন্তরীন কন্টেইনমেন্টে কংক্রিটিং করতে শুরু করবে। পরিকল্পনা অনুযায়ী সেপ্টেম্বর মাসে ১ নং ইউনিটে নকশা অনুসারে রিয়াক্টর ভেসেল স্থাপন করা হবে বলে জানান তিনি।

পাবনা জেলার ঈশ্বরদীর রূপপুরে পদ্মা নদীর পুর্বতীরে রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র রোসাটম রাষ্ট্রীয় কর্পোরেশন প্রকৌশল শাখার নকশার অনুযায়ী এটি নির্মিত হচ্ছে। এই প্রকল্পে মোট ২টি ইউনিটের প্রত্যেকটিতে ভিভিইআর ১২০০ টাইপের জেনারেশন থ্রি প্লাস চুল্লি থাকছে এবং এগুলোর জীবনকাল ৬০ বছর, যা পরে আরো ২০ বছর বাড়ানো যেতে পারে । রাশিয়ান নকশার এই ভিভিইআর ১২০০ রিয়াক্টর, যা বাংলাদেশের জন্য বেছে নেয়া হয়েছে। রাশিয়ার নভোভোরোনেঝ শহরে পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটে সফল ভাবে ব্যাবহার করা হচ্ছে। এই ধরনের রিয়াক্টর গুলো যুগান্তকারী জেনারেশন থ্রি প্লাাস প্রযুক্তি যুক্ত এবং সম্পুর্ন আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা মান অনুযায়ী নির্মিত।